বাংলা ডেস্ক

অন্যকে জানাতে পারেন:

ছবি: ইন্টারনেট

বিয়ের প্রথম রাত থেকেই নতুন অভিজ্ঞতা পেয়েছেন ভারতের ইন্দিরানগরে বাসিন্দা এক মহিলা৷ ঘটনা শুনলে চোখ কপালে উঠবে আপনার। 

উপায় না পেয়ে অবশেষে বিবাহ-বিচ্ছেদের জন্য আইনের আশ্রয় নিতে চলেছেন ইন্দিরানগরে সেই মহিলা৷ আর এই বিচ্ছেদের কারণ শুনলে চোখ কপালে উঠতে পারে অনেকেরই৷ 

খবরের ভেতরের সেই খবর-

২৯ বছর বয়সী এই মহিলা কাজ করেন এক সফট্ওয়্যার কোম্পানিতে৷ বছর খানেক আগে তাঁর বিয়ে হয়, পরিবারের দেখাশোনাতে৷ একরাশ স্বপ্ন নিয়ে নতুন জীবন শুরু করতে গিয়ে প্রথমেই ধাক্কা খায় সে৷ আবিষ্কার করে স্বামীকে একেবারেই অন্যরূপে৷

ওই মহিলা জানান, দিনের বেলায় আর পাঁচজনের স্বামীর মতোই তাঁর স্বামীও অফিসে যেতেন কাজে৷ কিন্তু রাতে বাড়ি ফেরার পরই অন্য এক মোড়কে নিজেকে মুড়ে নিতেন৷ আর তা হল সম্পূর্ণ নারীর বেশ৷ শাড়ি থেকে মেক আপ, গয়না বাদ যায় না কোনও কিছুই৷ সেই সঙ্গে বদলে যেতে থাকে তাঁর কথা-বার্তা থেকে শুরু করে আদব-কায়দা৷ রাত বাড়তে থাকার সঙ্গে সঙ্গে নারীর মোড়কে সম্পূর্ণ নিজেকে ঢেকে ফেলে সে৷ এমনকি বিয়ের প্রথম রাতেও তাঁর স্বামী শাড়ি পরতে চাওয়ায় বেশ অবাকই হয়েছিলেন তিনি৷ সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তিনি বুঝতে পারেন এভাবে এগিয়ে চলা তাঁর পক্ষে সম্ভব নয়, আর তখনই বিবাহ-বিচ্ছেদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেন তিনি৷ 

ইতিমধ্যেই তিনি পুলিশের কাছে একটি অভিযোগও দায়ের করেছেন বলে জানা গিয়েছে৷

আপনার মন্তব্য