suchi do not want to give relif for rohinga
ফাইল ছবি

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে পাঠানো সরকারি সহায়তা রোহিঙ্গা না দিয়ে সেখানে বসবাসকারী অন্যদের পুনর্বাসন কাজে ব্যয় করার তাগাদা দিয়েছেন দেশটির স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি। সাহায্যের তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে সেখানে বসবাসরত ও পালিয়ে অন্যত্র আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা মুসলিমদের।

বুধবার নেপিদোতে দেশটির জাতীয় সমন্বয় কমিটির সভায় সু চি রাখাইনে মানবিক ত্রাণ পৌঁছানো, পুনর্বাসন ও উন্নয়নে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কার্যকর ও দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

তবে এসব পদক্ষেপ শুধুমাত্র কথিত আরসা 'হামলায়' ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য নিতে বলা হয়েছে। সভায় সু চি দ্রুত যেসব পদক্ষেপ নেয়ার কথা বলেছেন, সেখানে রোহিঙ্গা মুসলিমদের জন্য কোনো ধরনের ত্রাণ বা সাহায্যের কথা বলা হয়নি।

মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থার বরাত দিয়ে চীনা সংবাদমাধ্যম সিনহুয়া বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানিয়েছে।

রোহিঙ্গা মুসলিমদের কথিত সংগঠন আরসার আক্রমণে সেখানে অনেক রাখাইন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে দাবি দেশটির। সেখানে চলমান সন্ত্রাস আরসার সৃষ্টি করা বলে দাবি করে মিয়ানমারের সরকার। সেই সরকারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা সু চির অবস্থানও অভিন্ন।

এর আগে রোহিঙ্গা নির্যাতন বিষয়ে সু চির ভূমিকার সমালোচনা করে অ্যামনেস্টি বলেছিল, বালুতে মুখ গুঁজে আছেন তিনি। হিউম্যান রাইটস ওয়াচ তার বিরুদ্ধে এনেছিল সেনাবাহিনীর জাতিগত শুদ্ধি অভিযান আড়ালের অভিযোগ।

সর্বশেষ বুধবার তিনি নতুন করে আবারও রোহিঙ্গা নিপীড়ন আড়াল করে আরসার কথিত সন্ত্রাসী হামলাকে বড় করে দেখিয়েছেন।

আপনার মন্তব্য