নিজস্ব প্রতিবেদক

অন্যকে জানাতে পারেন:

ছবি: সংগৃহীত

বিশ্ব ডিম দিবস উপলক্ষে ডিম মেলায় ৩ টাকায় ডিম বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ পোল্ট্রি ইন্ডাস্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিল (বিপিআইসিসি) এবং প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর। তাই শুক্রবার সকাল থেকেই রাজধানীর খামারবাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে ভিড় জমায় হাজারো মানুষ। তবে সেখানে ক্রেতা-বিক্রেতাদের বিশৃঙ্খলার কারণে ডিম বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছে আয়োজকরা। এমনকি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠিচার্জও করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, সকাল ১০টায় ডিম বিক্রি শুরু করার কথা থাকলেও, অতিরিক্ত ক্রেতার চাপে সকাল সাড়ে নয়টার দিকেই বিক্রি শুরু হয়। কিন্তু বিশৃংখলার কারণে মাত্র ২০ মিনিটের মাথায় বিক্রি বন্ধ করে দিতে হয়।

যমুনা টেলিভিশনের প্রতিবেদনে বলা হয়, অনেক ক্রেতাই টাকা দিয়ে বিশৃংখলার কারণে ডিম কিনতে পারেননি। আবার বিক্ষুব্ধ অনেকেই ডিম কিনতে না পারায়, যারা ডিম কিনেছেন তাদের ডিম ভেঙে দিয়েছেন।

আয়োজকরা বলছেন, আমাদের প্রত্যাশার চেয়ে অনেক বেশি ক্রেতা সমাগম হয়েছিল। যে কারণে সমস্যাটি তৈরি হয়েছে। আমরা আসলে ছোট পরিসরে একটি উদ্যোগ নিয়েছিলাম। এটা থেকে আমরা শিক্ষা নিলাম। পরবর্তীতে আশা করি সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে পারব।

বিশ্ব ডিম দিবস উপলক্ষে বিশেষ ছাড়ে ডিম বিক্রির সিদ্ধান্ত অনুয়ায়ী সকাল ১০টা থেকে শুরু হওয়া মেলা দুপুর ১টা পর্যন্ত চলার কথা থাকলেও ২০ মিনিট পর তা বন্ধ হয়ে যায়। মেলায় থেকে একজন ক্রেতা সর্বোচ্চ ৯০টি ডিম কিনতে পারবেন বলে জানিয়েছিলেন আয়োজকরা।

এদিকে বেসকারি চাকরিজীবী খোকন এসেছিলেন ডিম কিনতে। ডিম না পেয়ে ক্ষুদ্ধ তিনি। বললেন, সকাল থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে আছি। এখন ডিম না কিনেই বাড়িতে ফিরে যাচ্ছি। আয়োজরা এত প্রচার করলো সে অনুযায়ী ব্যবস্থা করা উচিত ছিল।

নয়ন নামে এক ক্রেতা অভিযোগ করলেন, মেলার ডিমে আগেই বিক্রি হয়ে গেছে। এখান থেকে কিনে নিয়ে অনেকেই বাইরে বিক্রি করছেন। আয়োজকরা আমাদের সঙ্গে প্রতারণা করছেন।  

হাসিবুল ইসলাম বলেন, ডিমের চেয়ে দিগুন মানুষ মেলায় এসেছে। পরিস্থিতি ঘোলাটে, ডিম পাবো না। মারামারি হওয়ার আশঙ্কায় বাসায় চলে যাচ্ছি।

তবে অনেকেই বাড়ি ফিরে গেলেও এখনও শত শত মানুষ ডিম কেনার জন্য দাঁড়িয়ে আছে।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার এব সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তিন টাকায় ডিম বিক্রির ঘোষণা দেয় বিপিআইসিসি। সংগঠনের সভাপতি মসিউর রহমান জানান, সারাদেশে ডিম দিবস বর্ণাঢ্যভাবে উদযাপনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। তিন টাকায় ডিম বিক্রির পাশাপাশি দিবসটি উপলক্ষে সুবিধাবঞ্চিত ও এতিম শিশুদের মাঝে বিনামূল্যে ডিম বিতরণ করা হবে।

আপনার মন্তব্য