বিদেশ ডেস্ক

অন্যকে জানাতে পারেন:

Gum for skin
ছবি: সংগৃহীত

মানুষের শরীরের কাটা ক্ষত জোড়া দেয়ার জন্য বিজ্ঞানীরা একটি গ্লু বা আঠা আবিস্কার করেছেন। এই আঠায় এক মিনিটের মধ্যে কাটা স্থান জোড়া লেগে যাবে। অস্ট্রেলিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়াররা যৌথভাবে এটা তৈরি করেছেন। তারা বলেছেন, এটা জরুরী জীবন রক্ষা করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

‘মেট্টো’ নামের এই ইঞ্জেকশন আঠা প্রাকৃতিক প্রোটিনের মতো কাজ করে, যেটাকে ট্রপিলাস্টিন বলা হয়। এটা সরসরি ক্ষত স্থানে ব্যবহার করতে হবে এবং আলোর মাধ্যমে এটা চামড়ার সাথে সম্পূর্ণ মিলিয়ে দিবে। এক্ষেত্রে কোনো ধরনের সেলাই বা কিছু দিয়ে আটকে রাখা থেকে দূরে থাকতে হবে। এর যে নমনীয়তা সেটা লাঞ্চ বা লিভারের মতো গুরুত্বপূর্ণ অভ্যন্তরীণ অঙ্গ-প্রতঙ্গকে ভালোভাবে আকার পরিবর্তনের মতো ব্যবহার করা যাবে।

কিছু শুকরছানার কলিজায় পরীক্ষামূলকভাবে এটা খুব সুন্দর ও সফলভাবে কাজ করেছে বলে একটি চিকিৎসা বিজ্ঞানের জার্নালে প্রকাশ করা হয়েছে।

নর্থইস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক এবং এ প্রবন্ধের প্রধান লেখক সহযোগী অধ্যাপক নাসিম আন্নাবি বলেন, মেট্টোর সবচেয়ে ভালো বিষয় হলো, এটা খুব সুন্দরভাবে ত্বকের উপরে কাজ করে। এটা গড়িয়ে পড়ে যায় না এবং একেবারেই জেলের মতো কাজ করে। এর আরেক লেখক ও সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমিস্ট্রির অধ্যাপক অ্যন্তনি উইভস এ আঠাকে বাথরুম এবং রান্নাঘরে টাইলসে ব্যবহৃত সিলিকনের সাথে তুলনা করেছেন।

তিনি  বলেন, এই আঠা দেখতে একেবারে তরল। ক্ষত স্থানটি পরিস্কার করে ত্বকের ফাঁকা জায়গায় লাগিয়ে দিন। যদিও এটা মানুষের ক্ষেত্রে ব্যবহারের জন্য এখনও অনেক গবেষণার দরকার রয়েছে, কারণ ভবিষতে এটার কোনো প্রভাব পড়বে কিনা সেটা জানা দরকার।

তিনি আরো বলেন, এটার প্রতি ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ একটি আবেদন রয়েছে। কার দুর্ঘটনা, যুদ্ধক্ষেত্র এবং শরীরের অভ্যন্তরীণ জরুরী ক্ষত সারাতে হাসপাতালে সার্জারি করার মতোই কাজে আসবে এটা।

আপনার মন্তব্য