ক্রীড়া ডেস্ক

অন্যকে জানাতে পারেন:

Argentina
ছবি: সংগৃহীত

কঠিন মারপ্যাচে আটকে গেছে আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ খেলার সম্ভাবনা। তবে এখনো একেবারে শেষ হয়ে যায়নি আর্জেন্টিার বিশ্বকাপ খেলার আশা। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চল থেকে চারটি দলের সুযোগ মেলে। পঞ্চম দলটির সুযোগ মেলে ওশেনিয়া অঞ্চলের শীর্ষ দলের সঙ্গে প্লে অফ খেলে বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে জায়গা করার। কিন্তু এক ম্যাচ হাতে রেখে আর্জেন্টিনার অবস্থা এখন ছয়ে!

আগেই বিশ্বকাপ নিশ্চিত করা ব্রাজিল ৩৮ পয়েন্ট নিয়ে সবার ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছে। ২৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা উরুগুয়েরও রাশিয়া বিশ্বকাপ অনেকটাই নিশ্চিত। ২৬ পয়েন্ট নিয়ে চিলি তৃতীয় এবং সমান পয়েন্ট নিয়ে কলম্বিয়া রয়েছে চতুর্থ স্থানে। ২৫ পয়েন্ট নিয়ে পেরু পঞ্চম এবং সমান পয়েন্ট নিয়ে আর্জেন্টিনার অবস্থান ছয়ে। ২৪ পয়েন্ট নিয়ে স্বপ্ন টিকিয়ে রাখল প্যারাগুয়েও।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের (কনমেবল) আর মাত্র একটি ম্যাচ বাকি রয়েছে। কনমেবল থেকে চারটি দল সরাসরি রাশিয়া বিশ্বকাপে জায়গা করে নেবে। পঞ্চম দলটিকে খেলতে হবে প্লে-অফে।

১০ অক্টোবর নিজেদের শেষ ম্যাচে আর্জেন্টিনা খেলবে ইকুয়েডরের বিপক্ষে। একইদিন চিলি খেলবে ব্রাজিলের মাঠে। অন্যদিকে ঘরের মাঠে পেরু খেলবে কলম্বিয়ার বিপক্ষে। চিলির প্রতিপক্ষ ব্রাজিল হওয়ায় এবং প্রতিদ্বন্দ্বী দুই দল পেরু ও কলম্বিয়া শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হওয়ায় আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপের খেলার স্বপ্ন এখনো মিইয়ে যায়নি। শেষ ম্যাচে ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে খেলবে প্যারাগুয়ে।

তাহলে আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপে জায়গা করে নেয়ার সমীকরণ কী: আগেই বলে রাখা ভালো- শেষ ম্যাচে হারলেই আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপের স্বপ্ন শেষ। জিতলে মেসিরা যে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ছে না সেটি নিশ্চিত হবে। ড্র করলেও সুযোগ থাকবে। এবার বিস্তারিত কথায় আসা যাক-

সমীকরণ এক: আর্জেন্টিনা শেষ ম্যাচে জিতলে তাদের পয়েন্ট হবে ২৮। চিলি ব্রাজিলের বিপক্ষে জয় পেলেও পেরু ও কলম্বিয়ার মধ্যকার একটি দলকে তো হারতে হবেই অথবা ম্যাচটি ড্র হবে। কলম্বিয়া-পেরু ম্যাচ ড্র হলে দুই দলের পয়েন্ট হবে যথাক্রমে- ২৭ ও ২৬। সেক্ষেত্রে (আর্জেন্টিনা জিতলে) সরাসরি বিশ্বকাপে জায়গা করে নেবেন মেসিরা।

সমীকরণ দুই: আর্জেন্টিনা যদি ইকুয়েডরের সঙ্গে ড্র করে এবং কলম্বিয়ার কাছে পেরু হেরে যায় তবে মেসির দল কমপক্ষে প্লে-অফে ওশেনিয়ার দল নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলার সুযোগ পাবে।

সমীকরণ তিন: চিলি যদি ব্রাজিলের কাছে হেরে যায় এবং আর্জেন্টিনা ইকুয়েডরের বিপক্ষে জয় পায় তবে কোনো সমীকরণ ছাড়াই আকাশী-নীলরা সরাসরি বিশ্বকাপে জায়গা করে নেবে।

সমীকরণ চার: চিলি যদি ব্রাজিলের সঙ্গে ড্র করে এবং আর্জেন্টিনা ইকুয়েডরের বিপক্ষে জয় পায় তবে পেরু-কলম্বিয়ার ম্যাচের ফলাফল যা-ই হোক না কেন আর্জেন্টিনা সরাসরি বিশ্বকাপে জায়গা করে নেবে।

সমীকরণ পাঁচ: আর্জেন্টিনা যদি ড্র করে এবং প্যারাগুয়ে জয় পায় ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে তবে আর্জেন্টিনার সমীকরণ কঠিন হয়ে যাবে। এমন পরিস্থিতিতে চিলি জয় পেলে এবং পেরু-কলম্বিয়া ম্যাচ ড্র হলে বাদ পড়বে আর্জেন্টিনা।

আপনার মন্তব্য