ক্রীড়া ডেস্ক

অন্যকে জানাতে পারেন:

সাকিব আল হাসান। ফাইল ছবি

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজে সাকিব আল হাসানকে বিশ্রাম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে তিনি চাইলে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে পারবেন। সোমবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান।

টানা ক্রিকেট খেলার ক্লান্তি ঘোচাতে সাকিব টেস্ট ক্রিকেট থেকে ছয় মাসের ছুটি চেয়ে গতকাল বিসিবির প্রধান নির্বাহীর কাছে চিঠি দিয়েছেন। চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে আপাতত দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে সাকিবকে বিশ্রাম দিচ্ছে বিসিবি। তবে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার যদি তাঁর সিদ্ধান্ত বদলান, সে দুয়ারও খোলা রাখছে বিসিবি।

আকরাম খান সাংবাদিকদের বললেন, ‘আমরা অনেক আলাপ-আলোচনা করেছি। আপাতত দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম ও দ্বিতীয় টেস্টে ওকে রাখছি না। তবে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে ও যদি খেলতে চায় আমরা তাকে নেব। যদি সে চিন্তাভাবনা বদলায়, সে কারণে একটি বিকল্প উপায় আমরা রেখেছি। তবে সে আপাতত টেস্ট দলের সঙ্গে যাচ্ছে না। ওর যদি ইচ্ছে হয় দ্বিতীয় টেস্টে খেলবে।’

সাকিব যেহেতু বাংলাদেশ দলের অপরিহার্য অংশ; এমন কঠিন একটা সিরিজে তাঁকে বিশ্রাম দেওয়ার সিদ্ধান্ত কেন নিয়েছে বিসিবি, এমন প্রশ্নে আকরামের ব্যাখ্যা, ‘সে আমাদের খুবই গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। একই সঙ্গে ওর অবস্থাও দেখতে হবে। সে মানসিক ও শারীরিকভাবে কী অবস্থায় আছে, সেটা আমাদের দেখতে হবে। আমরা চাই না বাংলাদেশ দল ক্ষতিগ্রস্ত হোক বা মাশরাফির মতো সে চোটে পড়ুক।’

সাকিব যেহেতু এই সময় ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি খেলবেন। তবে কি বড় দৈর্ঘ্যের ক্রিকেটে তাঁর অনীহা তৈরি হয়েছে? আকরাম তা মনে করেন না, ‘টেস্টে তার পারফরম্যান্স খুবই ভালো। মনে হয় না টেস্ট ক্রিকেট থেকে তার মন উঠে গেছে।’

উল্লেখ্য, এ বছর টেস্ট ক্রিকেটে সাকিবের পারফম্যান্স ছিল অনবদ্য। ৭ টেস্টে ব্যাট হাতে করেছেন ৬৬৫ রান, উইকেট নিয়েছেন ২৯টি। সদ্য সমাপ্ত অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের দুই বিভাগেই ভালো খেলেছেন তিনি। তাঁর অসাধারণ পারফরম্যান্সে অস্ট্রেলিয়াকে প্রথম টেস্টে হারিয়েছে বাংলাদেশ। 

আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাওয়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশ দলের। সেখানে দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার কথা রয়েছে বাংলাদেশ দলের।

আপনার মন্তব্য