ফিচার ডেস্ক

অন্যকে জানাতে পারেন:

প্রতীকী ছবি

নানা ধরনের রোগ-ব্যাধি থাকলেও এখনও প্রতি বছরে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা যান হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েই। ফলে হার্ট অ্যাটাকের লক্ষ্মণগুলি যদি আগে থেকে জানতে পারা যায় তাহলে তা সারিয়ে তোলার সুযোগটুকু অন্তত পাওয়া যেতে পারে। তাই হৃদরোগের আসল কারণ জানা প্রয়োজন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, হার্ট অ্যাটাকের অন্তত একমাস আগে থেকে শরীর সঙ্কেত দিতে শুরু করে। কী সেই সঙ্কেত তা জেনে নেওয়া যাক।

অতিরিক্ত ক্লান্তি : যদি কোনও কারণ ছাড়াই ক্লান্তি আপনাকে গ্রাস করলে বুঝবেন হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা রয়েছে। অনেক সময়ই হার্টের সমস্যা থাকলে ভালো ঘুমের পরও ক্লান্তি, অলসতা গ্রাস করে। দিনের বেলায় ঘুম পায়। এসব ভালো লক্ষণ নয়।

ঘুমে ব্যাঘাত : হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম পূর্ব লক্ষণ হল ঘুমে ব্যাঘাত। আপনার মনের মধ্যেই কেউ যেন বলতে থাকে, সবকিছু ঠিক নেই। রাতে বারবার ঘুম ভেঙে উঠে পড়েন আপনি। বারবার বাথরুমে যান। রাতে বারবার তেষ্টা পায়। এমন হলে তাড়াতাড়ি ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা : যদি শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা হয় তাহলে তা হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ হতে পারে। হার্ট ঠিকমতো কাজ না করলে এই সমস্যা হয়। ফুসফুসে সঠিক পরিমাণে অক্সিজেন না পৌঁছালে সমস্যা হয়।

বুকে অস্বস্তি : হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম লক্ষণ হল বুকে অস্বস্তি অনুভব করা। একমাস আগে থেকেই তা সঙ্কেত দিতে শুরু করে। যদি বুকে কোনও ধরনের চাপ বা জ্বালা অনুভব করেন তাহলে দেরি না করে ডাক্তারের কাছে ছুটে যান।

হজমের সমস্যা : তেল-মশলা যুক্ত খাবার হজমের সমস্যা ডেকে আনে ঠিকই তবে যদি বোঝেন প্রয়োজনের অতিরিক্ত সমস্যা হচ্ছে তাহলে সতর্ক হোন। কারণ হার্টের গোলমাল থাকলে এমনটা হতে পারে। প্রয়োজনে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

শারীরিক দুর্বলতা : যদি আপনার হার্ট প্রয়োজনমতো অক্সিজেন না টানতে পারে তাহলে তার প্রভাব শরীরে পড়বে। নার্ভের সঙ্গে জড়িত হার্ট, শিরদাঁড়া, বাহুতে তার প্রভাব পড়ে। যদি হাত অসাড় লাগে তাহলে তা হৃদরোগের অন্যতম বড় লক্ষণ।

সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া

আপনার মন্তব্য