নিজস্ব প্রতিবেদক

অন্যকে জানাতে পারেন:

বগুড়ায় ঘরে ঘরে দেখা দিয়েছে জ্বর। বৃদ্ধ, নারী, পুরুষ, শিশুসহ সকল বয়সের মানুষই জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আছে। প্রায় এক সপ্তাহ থাকছে এই জ্বর। সর্দির পাশাপাশি প্রচন্ড জ্বর বয়ে যাচ্ছে শরীরে। গত এক সপ্তাহে বগুড়ায় কমপক্ষে ৪ থেকে ৫ হাজার পরিবারে জ্বর হয়েছে বলে সংবাদ পাওয়া গেছে। 

চিকনগুনিয়ার মত জর বয়ে যাচ্ছে বগুড়া শহরের ওষুধের দোকানগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে। ঈদের আগে থেকে আজ সোমবার পর্যন্ত জ্বরের বিভিন্ন ওষুধ বিক্রি হচ্ছে বেশি। প্রেসক্রিপশন ছাড়ায় অনেকেই জ্বরের ওষুধ সংগ্রহ করছে। 

বগুড়া শহরের ঠনঠনিয়া, মালতিনগর, ভাটকান্দি, কলোনী, জলেশ্বরীতলা, জামিলনগর, ফুলবাড়ি মহিলা কলেজ রোড, সেউজগাড়ী, বৃন্দাবন পাড়া, চেলোপাড়া, নারুলি এলাকায় এমন অনেক রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। তাদের শরীরে প্রচন্ড জ্বরের পাশাপাশি সর্দি এবং কখনো কখনো হাত পা ব্যথা করার কথা জানিয়েছেন। 
বগুড়া শহরের বড়গোলা এলাকার বাসিন্দা আব্দুস সালাম বাবু জানান, ঈদের আগে থেকে একটু একটু করে জ্বর শরীরে বাসাা বাধে। ঈদের পরে প্রচন্ড জ্বর দেখা দেয়। পরে ওষুধ খেয়ে জ্বর কমেছে। প্রায় ৬দিন ধরে জ্বরে ছিলাম। অনেকেই চিকুনগুনিয়ার কথা বলেছে। 

বগুড়া শহরের ঠনঠনিয়া এলাকার জাহাঙ্গীর আলম জানান, পরিবারের দুই ছোট সন্তারের জর এসেছে। প্রথমে একজনের টা ভাল হওয়ার পর দ্বিতীয়জনের জ্বর এসেছে। 

বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ এর উপাধ্যক্ষ রেজাউল আলম জুয়েল জানান, ভাইরার জ্বর হচ্ছে ঘরে ঘরে। এমন বেশ কিছু রোগী এসেছেন। যাদের চিকিৎসা করা হয়েছে। এসময় সাবধান থাকতে হবে। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করতে হবে।

আপনার মন্তব্য